মুকুল রায় দল ছেড়েছেন। আর দলে ‘থেকেও নেই’ তাঁর পুত্র, বিধায়ক শুভ্রাংশু। বাবাকে ঘিরে দলের অন্দরে যে পরিবেশ তৈরি হয়েছে তাতে আপাত বিচ্ছিন্ন তিনিও!

আগামিকাল, সোমবার থেকে শুরু হবে রাজ্য বিধানসভার অধিবেশন। তাতে কি অংশ নিতে পারবেন দলত্যাগী মুকুলের পুত্র? ১০ দিনের অধিবেশনে সেদিকেই তাকিয়ে রয়েছে তৃণমূল। কারণ, তাঁকে ঘিরে রাজনৈতিক তরজায় দলের অন্দরে চরম অস্বস্তিকর পরিবেশ তৈরি হয়েছে শুভ্রাংশুর জন্য। অধিবেশন শুরুর আগে তাঁর অবস্থান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তৃণমূলের উত্তর ২৪ পরগনা জেলা সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। বাবা বিজেপি’তে গেলেও ছেলে তৃণমূলেই থাকবেন, এই তত্ত্বে প্রকাশ্যেই সংশয় প্রকাশ করেছেন গুরুত্বপূর্ণ এই নেতা। তবে শনিবার পর্যন্তও বিধানসভায় কোনও ছুটির আবেদন করেননি শুভ্রাংশু।

বিধানসভায় শুভ্রাংশুর আসন উত্তর ২৪ পরগনার দলীয় বিধায়কদের সারিতেই। সেই সতীর্থেরা দলীয় অবস্থান মেনেই এখন মুকুলের কট্টর সমালোচক। ফলে সেই সারিতে বসা শুভ্রাংশুর পক্ষে কতটা সম্ভব, তা নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়েছে দলের মধ্যে।

জেলার এক প্রবীণ নেতা বলেন, ‘‘কাঁচরাপাড়াতেও দলের সব স্তরেই কট্টর মুকুলবিরোধী মনোভাব রয়েছে। তা বুঝেই শুভ্রাংশুকে পদক্ষেপ করতে হবে।’’ দলের সঙ্গে দূরত্ব নিয়ে এই পর্বে নীরব শুভ্রাংশু। তাঁর সব ফোনই বন্ধ রয়েছে। ছেলের অবস্থান নিয়ে প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়েছে বিজেপি নেতা মুকুলকেও।

তিনি অবশ্য বলেন, ‘‘এ নিয়ে আমার কিছু বলার নেই। শুভ্রাংশু সাবালক। নিজের রাজনৈতিক অবস্থান ঠিক করতে তিনি উপযুক্ত।’’ আজ, রবিবার তৃণমূলের জেলা কোর কমিটির বৈঠক। কিন্তু সেখানে শুভ্রাংশুর থাকার সম্ভাবনা নেই বলেই মনে করছেন জেলা নেতারা। দলের এক বিধায়কের কথায়, ‘‘এখন দলের সব কর্মসূচিতেই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। সেখানে শুভ্রাংশুর থাকা অনিশ্চিত বলেই মনে হচ্ছে।’’