পটৌডি পরিবারে নতুন ‘নবাব’-এর আগমনের সঙ্গে সঙ্গে, তার নাম জড়িয়ে প্রচুর বিতর্ক হয়েছিল। খুদে মানুষটা তা জানতেও পারেনি। কিন্তু নেটিজেনদের যথাযথ উত্তর দিয়েছিলেন তার মা-বাবা, করিনা কপূর ও সেফ আলি খান।

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

তৈমুর আলি খান পটৌডি। একরত্তি ছেলেটির বয়স হয়েছে দেড় বছরের কিছু বেশি। কিন্তু জন্ম থেকেই সে সেলিব্রিটি। তৈমুর কী করছে, কোথায় যাচ্ছে, কবে কোন পার্টিতে কেমন জামা পরছে, কোন বলি তারকা-সন্তানদের সঙ্গে খেলা করছে— পাপারাৎজিদের নজর এড়ায় না কিছুই।

বলিউডের ‘ফার্স্ট ফ্যামিলি’, কপূর পরিবারের বর্তমানে সব থেকে ছোট সদস্য তৈমুরের যে কবিগুরুর সঙ্গেও সম্পর্ক রয়েছে, তাও চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে সংবাদমাধ্যম। তৈমুরের ঠাকুমা, অভিনেত্রী শর্মিলা ঠাকুরের বাবা ও মা, দু’জনেরই যোগ ছিল ঠাকুর পরিবারের সঙ্গে। 

যোগীতা বালি।ছবি: ইউটিউব

সম্প্রতি আরও এক বলি তারকা, তথা বাঙালি অভিনেতার সঙ্গে ছোট্ট তৈমুরের সম্পর্ক সামনে এসেছে। তিনি মিঠুন চক্রবর্তী। সম্পর্কে তৈমুরের দাদু হন ‘মহাগুরু’। এবং করিনা কপূরের পিসেমশাই!

একটু জটিল হলেও সম্পর্কটা হল এই রকম— 


গীতা বালি ও শাম্মি কপূর।ছবি: ইউটিউব

শাম্মি কপূরের স্ত্রী ছিলেন গীতা বালি, যাঁর আত্মিয় যোগীতা বালি বর্তমানে মিঠুন চক্রবর্তীর স্ত্রী। সেদিক থেকে দেখতে গেলে করিনা কপূরের পিসি হন যোগীতা বালি। অর্থাৎ, তৈমুরের দিদিমা। ফলে, মহাগুরু হলেন তৈমুরের ‘মহা’দাদু।