একেই বোধ হয় বলে, গলি থেকে রাজপথে। এশিয়ান গেমস থেকে ওড়িশার অ্যাথলিট দ্যুতি চাঁদ ১০০ মিটার ফাইনালে রুপো জেতেন। জাকার্তায় সাফল্যের পরে ওড়িশা সরকার দ্যুতিকে দেড় কোটি টাকা পুরস্কার দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন। 

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েক জানালেন, '' দ্যুতি যা করেছে সেটা গোটা দেশ ও ওড়িশার জন্য গর্বের ব্যাপার। কুড়ি বছর পর ওড়িশার কোনও অ্যাথলিট এশিয়ান গেমসে পদক এনে দিল। এটার জন্য কোনও প্রশংসা, কোনও পুরস্কারই যথেষ্ট নয়।’’ 

আজ থেকে ২০ বছর আগে ১৯৯৮ সালের এশিয়ান গেমসে রচিতা পাণ্ডা ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন। ওড়িশা সরকারের পাশাপাশি রাজ্য অলিম্পিক সংস্থা দ্যুতিকে আর্থিক পুরস্কার দিচ্ছে। দ্যুতির এই সাফল্য খুব সহজ ছিল না। ২০১৪ সালের গ্লাসগো কমনওয়েলথ গেমসে শেষ মুহূর্তে বাদ পড়তে হয়েছিল দ্যুতিকে। 

দ্যুতিকে বাদ দেওয়ার কারণ হিসেবে অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া স্পষ্ট কোনও কারণ দেখায়নি। দ্যুতির বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল ‘হাইপারঅ্যান্ড্রোজেনিজম’-এর। সেই সময়ে বলা হয়েছিল, উচ্চ‘অ্যান্ড্রোজেনিজম’-এর সুযোগ নিয়ে প্রতিযোগিতায় ভাল ফল করছেন দ্যুতি। মামলা গড়িয়েছিল কোর্ট অফ আরবিট্রেশন ফর স্পোর্ট বা ক্যাস-এ। পরে অবশ্য অভিযোগ থেকে দ্যুতি রেহাই পান। এরকমই চড়াই উতরাই অতিক্রম করে দ্যুতি আজ সাফল্যের রাস্তায়।