একেবারে তৃণমূলের পার্টি অফিসের ভিতরেই বসত মদের আসর! জেলা সভাপতির কাছে অভিযোগ করায় উলটে তৃণমূল নেতার কপালে জুটল মার। অভিযোগের আঙুল স্থানীয় তৃণমূল নেতার জামাইয়ের বিরুদ্ধে। আক্রান্ত তৃণমূল নেতা শান্তিনাথ মুখোপাধ্যায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। 

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

ঘটনা বাঁকুড়ার ওন্দা থানার রামসাগরের। ওন্দা থানায় অভিযোগ দায়ের। তৃণমূল জেলা নেতৃত্বকেও বিষয়টি জানিয়েছেন আক্রান্ত তৃণমূল নেতা। বাঁকুড়ার ওন্দা থানার রামসাগর তৃণমূলের অঞ্চল অফিস। অভিযোগ, সেই অফিসেই নিয়মিত মদের আসর বসাতেন এলাকার তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ দাসের জামাই সোমনাথ দে। 

পার্টি অফিসের মধ্যে মদের আসর কোনওভাবেই মেনে নিতে পারছিলেন না তৃণমূল নেতা শান্তিনাথ মুখোপাধ্যায় সহ অন্যান্য কর্মীরা। ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন স্থানীয় মানুষজনও। শান্তিনাথবাবু বলেন, ‘‘পার্টি অফিসের মধ্যে মদের আসরের প্রতিবাদ করেছিলাম এবং বিষয়টি জেলা সভাপতিকে জানিয়েছিলাম।’’ তাঁর অভিযোগ, মদ খাওয়ার বিষয়টি জেলা সভাপতিকে জানানোর জন্য শান্তিনাথ মুখোপাধ্যায়ের বাড়িতে চড়াও হয় তৃণমূল নেতার জামাই সোমনাথ। বাড়ির মধ্যে ঢুকে বেধড়ক মারধর করা হয় শান্তিনাথবাবুকে। এমনকী, মহিলাদের সঙ্গে অভব্য আচরণ করে বলেও অভিযোগ ওঠে সোমনাথের বিরুদ্ধে। 

ঘটনার পরই ওন্দা পুলিশের দ্বারস্থ হন শান্তিনাথবাবু । ওন্দা থানার পুলিশ তাঁকে ভর্তি করেন ওন্দা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে। লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয় ওন্দা থানায়। হাসপাতালে আক্রান্ত তৃণমূল নেতা শান্তিনাথ মুখোপাধ্যায়কে দেখতে যান বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল সভাপতি অরূপ খাঁ।