জিও-প্রেমীদের জন্য সুখবর। কারণ, সূত্রের খবর, ট্রাই-এর কাছে ক্লিনচিট পেতে চলেছে জিও। জিও-র ‘ট্যারিফ প্ল্যান’ কোনও মতে টেলিকম রেগুলেটরিকে লঙ্ঘন করছে কি না, এই বিষয়ে নাকি সিদ্ধান্তে পৌঁছে গিয়েছে ট্রাই। জিও যে ট্যারিফ প্ল্যান বানিয়েছে, তা সম্পূর্ণভাবে বৈধ বলেই নাকি ট্রাই রিপোর্ট তৈরি করেছে।  

আরও পড়ুন... 

মিশে যাচ্ছে ভোডাফোন-আইডিয়া? কেন ভয় পাচ্ছে জিও এবং এয়ারটেল 

জিও-র অভিযোগ সত্য হলে ভয়ানক বিপদে পড়তে পারে এয়ারটেল, ট্রাই-কে অভিযোগ

জিও-র ‘ফ্রি’ পরিষেবা নিয়ে টিডিস্যাট-এ মামলা করেছে এয়ারটেল এবং আইডিয়া সেলুলার। ভোডাফোন আবার জিও-র ‘ফ্রি’ অফারের বিরোধিতা করে দিল্লি হাইকোর্টে মামলা করেছে। ১ ফেব্রুয়ারি তার শুনানিও ছিল। সেখানে দিল্লি হাইকোর্ট ট্রাই-এর জবাবদিহিও চায়। ট্রাই জানিয়ে দেয় যে, জিও-র ট্যারিফ প্ল্যান নিয়ে কী ভাবা হচ্ছে, তা অন্য টেলিকম সংস্থাগুলোকে জানিয়ে দেওয়া হবে। আদালত ২ ফেব্রুয়ারির মধ্যে এই জানানোর কাজ শেষ করতে নির্দেশ দিয়েছিল।  অন্য দিকে টিডিস্যাটও জিও-র ট্যারিফ প্ল্যান নিয়ে ট্রাই-এর কাছে চূড়ান্ত রিপোর্ট চেয়েছে। এই নিয়ে ফেব্রুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহের শুরুতেই টিডিস্যাটে শুনানি রয়েছে। 

জিও-র ট্যারিফ প্ল্যানকে আইনি দিক থেকে খতিয়ে দেখার জন্য অ্যাডভোকেট জেনারেলের দ্বারস্থ হয়েছিল ট্রাই। অ্যাডভোকেট জেনারেল জিও-র সমস্ত প্ল্যান খতিয়ে দেখে বুধবার রিপোর্টও জমা করে দিয়েছেন। এই রিপোর্টেই অ্যাডভোকেট জেনারেল জিও-র ট্যারিফ প্ল্যানকে বৈধ বলেছেন। ট্রাই এই রিপোর্ট ইতিমধ্যেই ভারতী এয়ারটেল এবং আইডিয়া সেলুলারকে পাঠিয়ে দিয়েছে বলে সূত্রের খবর। ট্রাই-এর এই রিপোর্টে জিও আদতে ক্লিন-চিটই পেতে চলেছে বলে মনে করা হচ্ছে। ফলে, ট্রাই-এর দিক থেকে জিও-র ‘ফ্রি’ অফার মেয়াদের আগেই বাতিল হওয়ার আর আশঙ্কা থাকছে না। ট্রাই-এর এই অবস্থান স্বাভাবিকভাবে জিও গ্রাহকদের কাছে স্বস্তি নিয়ে আসবে বলেই মনে করা হচ্ছে। 

জিও ইতিমধ্যেই টিডিস্যাটকে জানিয়েছে, সেপ্টেম্বর থেকে ডিসেম্বরের ৩১ তারিখ পর্যন্ত চলা ‘ফ্রি ওয়েলকাম অফার’-এর সঙ্গে ‘হ্যাপি নিউ ইয়ার ফ্রি অফার’-এর কোনও মিল নেই। ‘ফ্রি ওয়েলকাম অফার’-এ দিনে ৪ জিবি ইন্টারনেট ডেটা ফ্রি পাচ্ছিলেন গ্রাহকরা। এই ৪ জিবি ডেটা শেষ হয়ে গেলে আর রিচার্জ করার সুযোগ পেতেন না গ্রাহকরা। কিন্তু, ‘হ্যাপি নিউ ইয়ার ফ্রি অফার’-এর ৪ জিবি-র বদলে ১ জিবি ইন্টারনেট ডেটা বিনামূল্যে দেওয়া হচ্ছে। ১ জিবি ডেটা শেষ হলে টাকা দিয়ে ডেটা রিচার্জ করার সুযোগ পাচ্ছেন গ্রাহকরা। ট্রাই-এর অবস্থান এখন টিডিস্যাট ও দিল্লি হাইকোর্টে জিও-কে কতটা স্বস্তি দিতে পারে, সে দিকেই এখন তাকিয়ে গ্রাহকরা।