অর্জুন পুরস্কারপ্রাপ্ত প্রাক্তন জাতীয় টেবিল টেনিস চ্যাম্পিয়ন সৌম্যাজিৎ ঘোষ’কে নির্বাসিত করার সিদ্ধান্ত নিচ্ছে সর্বভারতীয় টেবিল টেনিস সংস্থা (টিটিএফআই)। একইসঙ্গে আসন্ন কমনওয়েলথ গেমসের জন্য ঘোষিত জাতীয় দল থেকেও বাদ পড়ছেন সৌম্যজিৎ।

বুধবার বারাসত থানায় এক ১৮ বছরের তরুণী সৌম্যজিতের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করার পর টিটিএফআইয়ের এই সিদ্ধান্ত। সৌম্যজিতের বিরুদ্ধে তরুণীর অভিযোগ শুধু ধর্ষণের নয়। গর্ভবতী অবস্থায় সন্তান নষ্ট করার অভিযোগও ওই তরুণী করেছেন। বৃহস্পতিবার বারাসত আদালতে গোপন জবানবন্দি দিয়েছেন। কিছু নথিপত্রও জমা দিয়েছেন। এই খবর জানিয়েছেন উত্তর ২৪ পরগণার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়। 
বৃহস্পতিবার টিটিএফআই সচিব এমপি সিংহ বলেছেন, ‘‘সৌম্যজিতের বিরুদ্ধে অভিযোগ কিন্তু গুরুতর। কমনওয়েলথ গেমসে সৌম্যজিৎ জাতীয় দলের অন্যতম সদস্য। কিন্তু তদন্তের বিষয়টা মাথায় রেখেই ওকে নির্বাসিত করতে হবে।’’ 

সৌম্যাজিৎ এখন রয়েছেন জার্মানিতে। খেলছেন জার্মান ওপেনয়ে। ট্রেনিংয়ের সঙ্গে ওখানকার লিগও খেলছেন নিজের খেলার মান বাড়াতে। বৃহস্পতিবার জার্মানি থেকে সংবাদসংস্থাকে দেওয়া প্রতিক্রিয়ায় সৌম্যজিতের দাবি, ওই তরুণী তাঁকে ব্ল্যাকমেল করছেন! বলেছেন, ‘‘আমি জানি না। এটা একটা চক্রান্ত। ওর সঙ্গে সম্পর্ক শেষ হওয়ার পর থেকেই মেয়েটি আমাকে ও আমার পরিবারকে ব্ল্যাকমেল করছে। আমার টেবিল টেনিস জীবন শেষ করে দেওয়ার চেষ্টা করছে। আর এটা চলছে প্রায় দেড় বছর ধরে।’’ সৌম্যজিৎ স্বীকার করেছেন, তরুণীর সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক ছিল। এমনকী এ-ও স্বীকার করেছেন, মেয়েটির মা তাঁকে পাণ্ডুয়ায় একটি বাড়িও উপহার দিয়েছিলেন। আবার ওই তরুণীর বাবার চিকিৎসার খরচের জন্য ক্রেডিট কার্ডে ৫০ হাজার টাকাও দিয়েছিলেন সৌম্যজিৎ। 

টিটিএফআই কর্তারা ভাবছেন সৌম্যজিতের পরিবর্ত খেলোয়াড় হিসাবে রিজার্ভ দল থেকে সানিল সেট্টি’কে জাতীয় দলে নেওয়া যায় কি না। সচিব বলেছেন, ‘‘সানিল সেট্টি’কে দলে নেওয়া হবে সৌম্যজিতের পরিবর্তে।’’ কিন্তু আইওএ প্রেসিডেন্ট নরেন্দ্র বাতরার মত, পরিবর্ত খেলোয়াড় এখন দলে ঢোকানো কঠিন।