বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি)-র নতুন নির্দেশিকা পাঠাল দেশের বিশ্ববিদ্যালয় এবং অন্যান্য উচ্চশিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলিকে। তাতে বলা হল, ছাত্রছাত্রীদের শংসাপত্রে বিশেষ ধরনের আইডেন্টিফিকেশন মেকানিজম থাকা বাধ্যতামূলক। অর্থাৎ এ বার থেকে পরীক্ষার্থীদের ডিগ্রি এবং সার্টিফিকেটে থাকবে তাদের ছবি এবং আধার নম্বর। 

ইউজিসি সেক্রেটারি জে এস সান্ধু বিশ্ববিদ্যালয়গুলির কাছে প্রেরিত এক বার্তায় জানিয়েছেন, ‘সার্টিফিকেট এবং ডিগ্রিতে সিকিউরিটি ফিচার থাকলে সেগুলি জাল হওয়ার সম্ভাবনা কমবে। পাশাপাশি উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে সারা দেশে সাম্য এবং স্বচ্ছতা প্রতিষ্ঠিত হবে।’ 

জে এস সান্ধুর সই করা নির্দেশিকাটিতে আরও বলা হয়েছে, ‘প্রত্যেক শংসাপত্রে আইডেন্টিফিকেশন মেকানিজম সংযোজনের নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে। অর্থাৎ প্রতিটি শং‌সাপত্রে পরীক্ষার্থীর ফটোগ্রাফ এবং ইউনিক আইডি/আধার নম্বর সংযোজিত হবে। তা ছাড়া যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্র বা ছাত্রী হিসেবে পরীক্ষার্থী পরীক্ষা দিয়েছিল, তার নামও উল্লেখ খাকতে হবে শংসাপত্রে।’

অর্থাৎ বর্তমানে যে চেহারা রয়েছে ডিগ্রির, তাতে যুক্ত হতে চলেছে আরও তিনটি বিষয়— 

১. পরীক্ষার্থীর ছবি,
২. পরীক্ষার্থীর আধার নম্বর,
৩. সংশ্লিষ্ট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নাম।

এই সিদ্ধান্তের মাধ্যমে পরোক্ষে উচ্চশিক্ষায় প্রত্যেক শিক্ষার্থীর আধার থাকাও বাধ্যতামূলক হচ্ছে। পরীক্ষার্থীকে নিজের ১২ অঙ্কের আধার নম্বর সম্ভবত পরীক্ষার ফর্ম ফিল আপের সময়েই জানিয়ে দিতে হবে।