পুণের খাদাকওয়াসলার ন্যাশনাল ডিফেন্স অ্যাকাডেমি ঢোকার মুখেই এই টেবিলটি আপনি দেখতে পাবেন। একটি ছোট ডাইনিং টেবিল, সঙ্গে সামনের দিকে ঝোঁকানো একটি মাত্র চেয়ার। টেবিলের উপরে দু’টি ছোট প্লেট, একটি গ্লাস, একটি ছোট ফুলদানিতে একটা মাত্র গোলাপ। সঙ্গে একটি সাধারণ চামচ এবং একটি কাঁটাচামচ। সব মিলিয়ে একজনকে আপ্যায়ন করার মতো ব্যবস্থা।

এটুকু দেখে আপনার মনে হতে পারে যে কাউকে আপ্যায়ন করার জন্য এই ব্যবস্থা করে রাখা হয়েছে। কিন্তু এই টেবিলটির সঙ্গেই জড়িয়ে রয়েছে এক মন ছুঁয়ে যাওয়া কাহিনি। ভারতীয় সেনাবাহিনীর কাছে যা একটি ঐতিহ্য। ১৯৭১-এ বাংলাদেশকে স্বাধীন করতে পাকিস্তানের সঙ্গে লড়েছিলেন ভারতীয় সেনারা। যুদ্ধে পরাজয় স্বীকার করে নিয়ে পাকিস্তান আত্মসমর্পণ করলেও মোট ৫৪জন ভারতীয় সেনা জওয়ান সেই যুদ্ধের পরে নিখোঁজ হয়ে যান। নিখোঁজ এই সেনা জওয়ানদের পাকিস্তানের জেলে বন্দি করে রাখা হয়েছে বলেই সেনাবাহিনীর ধারণা। ১৯৭১-এর যুদ্ধে নিখোঁজ ভারতীয় মেজর অশোক ঘোষের পাকিস্তানে জেলবন্দি ছবি ‘টাইম’ ম্যাগাজিনেও প্রকাশিত হয়েছিল। মেজর অশোক সুরি তাঁর বাবাকে চিঠি লিখে তাঁকে ছাড়ানোর জন্য ভারত সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলেছিলেন। কিন্তু পাকিস্তান বরাবরই তাদের দেশের জেলে কোনও ভারতীয় সেনার বন্দি থাকার কথা অস্বীকার করেছে। ফলে যুদ্ধ শেষ হওয়ার ৪৫ বছর পরেও সেই ৫৪জন জওয়ান এখনও সেনাবাহিনীর কাছে নিখোঁজ।

নিজেদের সেই সহযোদ্ধাদের প্রতি সহমর্মিতা দেখিয়েই খাদাকওয়াসলার ন্যাশনাল ডিফেন্স অ্যাকাডেমিতে এই ডাইনিং টেবিলটি সবসময়ে প্রস্তুত রাখা হয়। যাতে নিখোঁজ সেই সেনা জওয়ানদের কেউ ফিরে এলেই তাঁকে স্বাগত জানানো যায়। সম্প্রতি সেনাবাহিনীর নিজস্ব ফেসবুক পেজে এই টেবিলের ছবি পোস্ট করে তার সঙ্গে জড়িয়ে থাকা এই কাহিনি তুলে ধরা হয়েছে। কিন্তু এত ছোট টেবিল কেন? তারও ব্যাখ্যা রয়েছে। সেনাবাহিনীর ব্যাখ্যা অনুযায়ী, অত্যাচারকারীদের হাতে এক বন্দির অসহায়তাকে বোঝানো হয়েছে। টেবিলের ফুলদানিতে রাখা একটি গোলাপ নিখোঁজ সেই সেনা জওয়ানদের পরিবার এবং প্রিয়জনদের জন্য, যাঁরা আজও বিশ্বাস করেন, ৪৫ বছর ধরে তাঁদের পরিবারের নিখোঁজ সদস্যটি একদিন ঠিক ফিরে আসবেন। গ্লাসটি উল্টো করে রাখা, কারণ নিখোঁজ সেনাজওয়ান ফিরে এসে নিজের সহযোদ্ধাদের সঙ্গে জয়ের আনন্দ ভাগ করে নিতে পারেননি। টেবিলের উপরে ছোট প্লেটটিতে রাখা নুন আসলে নিখোঁজ সেনা জওয়ানদের প্রিয়জনদের চোখের জলের প্রতীক। 

ভারতীয় সেনাবাহিনীর ফেসবুক পোস্ট।

এইভাবে টেবিলে রাখা প্রতিটি জিনিসের আলাদা ব্যাখ্যা রয়েছে ভারতীয় সেনার কাছে। তার সঙ্গে টেবিলের উপরে রাখা প্ল্যাকার্ডে বলা হয়েছে, নিখোঁজ সেনা জওয়ানরা ফিরে না আসা পর্যন্ত তাঁদের যেন মনে রাখা হয়।