ডোনাল্ড ট্রাম্প ‘এইচ-ওয়ান-বি’ ভিসা আইনে বড়সড় রদবলের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। যার জেরে এখন সিঁদূরে মেঘ দেখছে ভারতীয় তথ্য-প্রযুক্তি সংস্থাগুলি। কারণ, ‘এইচ-ওয়ান-বি’ ভিসা আইনে যেসব রদবদলের কথা ঘোষণা করা হয়েছে তা বলবৎ হলে অসংখ্য ভারতীয়কে মার্কিন মুলুক ছাড়তে হতে পারে। 

মঙ্গলবার মার্কিন হোমল্যান্ড সিকিউরিটি অভিবাসন নিয়ে এক নয়া বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে। আমেরিকায় ‘অবৈধ বসবাসকারী’-দের জন্য এই বিজ্ঞপ্তি বলে জানানো হয়েছে। এই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘ যে সব বিদেশি অবৈধভাবে মার্কিন মুলুকে বসবাস করছেন তাঁদের কাছে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র না থাকলে তাঁদের গ্রেফতার করা হবে। অবৈধ বসবাসকারীরা মার্কিন অভিবাসন আইনকে লঙ্ঘন করছেন বলেই ধরা হবে।’  

আমেরিকায় এই মুহূর্তে অবৈধ বিদেশি বসবাসকারীর সংখ্যা ১ কোটি ১০ লক্ষ। এরমধ্যে ৩ লক্ষ ভারতীয়। সুতরাং, নয়া মার্কিন অভিবাসন আইনে এঁদের কর্মচূত্য হওয়ার আশঙ্কাই শুধু থাকছে না, এঁদেরকে মার্কিন মুলুকও ছাড়তে হতে পারে। 

মঙ্গলবার দিল্লিতে মার্কিন কংগ্রেসের প্রতিনিধি দলের কাছে ‘এইচ-ওয়ান-বি’ ভিসার সংস্কারের বিষয়টি পুনর্বিবেচনার জন্য ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আর্জিও জানিয়েছেন। টিসিএস, কগনিজেন্ট, উইপ্রো, ইনফোসিসের মতো ভারতীয় তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পসংস্থাগুলি এই পদক্ষেপে রীতিমতো উদ্বিগ্ন। কারণ, এই ক’টি সংস্থার অন্তত কয়েক লক্ষ কর্মী মার্কিন মুলুকে এই মুহূর্তে কাজ করছেন। ‘এইচ-ওয়ান-বি’ ভিসার নয়া আইনে এদের কাজ ফেলে দেশে ফিরতে হতে পারে। এমনটা হলে ভারতীয় তথ্য-প্রযুক্তি সংস্থাগুলিকে কয়েক লক্ষ হাজার কোটি টাকার ক্ষতির সম্মুখিন হবে। ফলে ট্রাম্প প্রশাসন ও কংগ্রেস সদস্যদের সঙ্গে এই নিয়ে দরবারের কথাও ভাবছে ভারতীয় তথ্য-প্রযুক্তি সংস্থাগুলি।