অবশেষে অনেক জল্পনা উড়িয়ে কেকেআর কর্তারা নিজেদের নেতা বেছে নিলেন। ৪ তারিখে নতুন নেতা বেছে নেওয়া হবে, আগেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল ফ্র্যাঞ্চাইজির তরফে। সেই প্রতিশ্রুতি মেনেই রবিবার সকালে ঘোষণা করে দেওয়া হয় দীনেশ কার্তিক হবেন নয়া কেকেআর নেতা।

উত্থাপ্পা, লিন-সহ একাধিক তারকা ক্রিকেটার গম্ভীরের জুতোয় পা গলাতে প্রস্তুত ছিলেন। তবে কেন দীনেশ কার্তিকই। টিভি শো-য়ে কেকেআর-এর সিইও ভেঙ্কি মাইসোর বলে দেন, গম্ভীরের পরিবর্তে তাঁরা এমন একজনকে খুঁজছিলেন যে দীর্ঘমেয়াদি ভিত্তিতে কেকেআর-এ নেতার দায়িত্ব সামলাতে পারবেন। তিনি বলছিলেন, ‘‘আমরা দীর্ঘমেয়াদি ভিত্তিতে অধিনায়ক খুঁজছিলাম। এমন একজনকে প্রয়োজন ছিল যিনি গৌতমের মতো দলকে নেতৃত্ব দিতে পারবেন।’’

ক্রিস লিন ছিলেন নাইটদের অধিনায়ক হওয়ার প্রধান দাবিদার। জাক কালিস নিজেই একথা জানিয়েছিলেন। তবে ঘরোয়া টুর্নামেন্টে খেলতে গিয়ে অজি তারকা চোট পাওয়ায় সমস্যা তৈরি হয়। এখন তিনি কেকেআর-এর জার্সিতে খেলতে পারবেন না, তা নিয়েই শুরু হয়েছে জল্পনা।

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

রবিন উত্থাপ্পা আবার দীর্ঘদিন গম্ভীরের অধিনায়কত্বে কেকেআর শিবিরের নির্ভরযোগ্য ক্রিকেটার হওয়ায়, অনেকেই বাজি ধরেছিলেন কর্নাটকী ক্রিকেটারের উপর। স্বয়ং সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ও চেয়েছিলেন উত্থাপ্পাকেই ক্যাপ্টেন করা হোক।

তবে সব হিসেব উলটে দিলেন দীনেশ কার্তিক। নিলামে ৭.৪ কোটি টাকা খরচ করে কার্তিককে কেনা হয়েছিল। নতুন নেতা নির্বাচিত হওয়ার পর কার্তিক বলেন, ‘‘শেষ এক দশকে কেকেআর ধারাবাহিকভাবে ভাল খেলেছে। আইপিএল-এ কেকেআর ঐতিহ্যও বিশাল। এমন একটা দলের নেতা নির্বাচিত হওয়ার পর সম্মানিত বোধ করছি। দলে তারুণ্য ও অভিজ্ঞতার সঠিক মিশেল রয়েছে। দলের বিদেশি ক্রিকেটাররাও যথেষ্ট ভাল। গম্ভীর যেখানে শেষ করেছেন, সেখান থেকেই দলকে এগিয়ে নিতে যেতে চাই।’’