খোঁজ মিলল অন্য ‘মনুয়ার’। বারাসতের অনুপম সিংহ হত্যাকাণ্ডের স্মৃতি উস্কে দিয়ে ফের নৃশংস খুন রাজ্যে। এবার ঘটনাস্থল ব্যারাকপুরের বীজপুর। স্ত্রীর অবৈধ প্রেমে বাধা হয়ে দাঁড়ানোয় খুন হলেন স্বামী। 

প্রেমিকের সহায়তায় মদ্যপ স্বামীকে শ্বাসরোধ করে খুন করার অভিযোগ উঠেছে অঞ্জু দাস নামে এক মহিলার বিরুদ্ধে। গত ৫ জুলাই বীজপুরের পশ্চিমপাড়ায় একটি পুকুরের ধারে এক যুবকের রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তদন্তে জানা যায়, মৃত যুবকের নাম বাবুন দাস(৩২)। তাঁর গলায় গভীর ক্ষত ছিল। স্থানীয় বাসিন্দাদের জিজ্ঞাসাবাদের পরে পুলিশের সন্দেহ হয় পেশায় ভ্যানচালক বাবুনের স্ত্রী অঞ্জু’র উপর। তাকে আটক করে জেরা করতেই গোটা ঘটনা পুলিশের সামনে স্বীকার করেছে অভিযুক্ত। 

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, শম্ভু সাধক নামে এক যুবকের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে অঞ্জু। বাবুল কাজে বেরিয়ে যাওয়ার পর প্রায়ই অঞ্জুর সঙ্গে দেখা করতে আসত সে। লুকিয়ে লুকিয়ে দেখা সাক্ষাৎ বেশ কিছুদিন চলার পরে এই সম্পর্ক আরও এক ধাপ এগনোর ইচ্ছে প্রকাশ করে দু’জনেই। কিন্তু যতক্ষণ বাবুন বেঁচে রয়েছেন, ততক্ষণ সেটা সম্ভব ছিল না। তাই ভাবনা চিন্তা করেই বাবুনকে খুন করার সিদ্ধান্ত নেয় অঞ্জু। এই কাজে তাকে সাহায্য করে শম্ভু সাধক। তবে শম্ভু এখনও পলাতক। তার খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। এদের সঙ্গে আরও কেউ যুক্ত রয়েছে কি না, তা-ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।