২০১৮ সালে বিশ্ব দাবা চ্যাম্পিয়নশিপের আসর বসছে। ৯ থেকে ২৮ নভেম্বর লন্ডনে হবে চৌষট্টি খোপের যুদ্ধ। তবে প্রতিযোগিতা শুরুর এক বছর আগেই ধুন্ধুমার। লোগো নিয়ে উত্তাল গোটা বিশ্ব।

আসলে বিতর্ক শুরু হয়েছে দাবা চ্যাম্পিয়নশিপের লোগো প্রকাশ্যে আসার পর। যে বিমূর্ত লোগো প্রকাশ করা হয়েছে, তাতে অত্যন্ত অশালীন ভঙ্গিতে দেখা গিয়েছে দু’জনকে। অনেকেই ‘কামসূত্র’-এর যৌন আসনের আদল খুঁজে পেয়েছেন এই লোগোয়। লোগোয় আঁকা ছেলেটি কৃষ্ণবর্ণের, মেয়েটি শ্বেত। পুরুষ ও নারীর হাতে বিপরীত রংয়ের গুটি রয়েছে।

দাবার ‘কামসূত্র’ লোগো। — ওয়ার্ল্ড চেস টুইটার অ্যাকাউন্ট

খেলাধুলোয় এমন লোগো বেনজির। এতেই দানা বেঁধেছে বিতর্ক। সকলেই কার্যত এক বিষয়ে একমত। তা হল— খেলাধুলোয় এমন লোগো বানানো হলে, এর খারাপ প্রভাব পড়বে তরুণ প্রজন্মের উপরে। সব মিলিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় আয়োজকদের বিরুদ্ধে সমালোচনা তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে। গ্র্যান্ড মাস্টারদের মধ্যেও বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে।

তবে কোনও সমালোচনা শুনতে নারাজ আয়োজকরা। তাঁদের যুক্তি, ‘‘চেকমেট নয়, দাবা হোক সোলমেট।’’ এ বারের টুর্নামেন্টে এটাই নাকি স্লোগান। এই স্লোগানকে সামনে রেখেই তৈরি করা হয়েছে লোগো। আসলে লোগোটি তৈরি করেছে মস্কোর এক স্টুডিও। তবে কোনও অবস্থাতেই লোগো পরিবর্তন করা হবে না, বলে জানিয়েছে আয়োজক সংস্থা।
 

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর