আমেরিকার শিকাগোয় বিশ্ব হিন্দু কংগ্রেসের অন্যতম আলোচ্য বিষয় হল ‘লভ জিহাদ’। ভিন্ন ধর্মের মধ্যে বিয়ের উদাহরণ দিয়ে ব্যানার পড়েছে এই সম্মেলনে। সেখানে ভারতীয় অভিনেত্রী শর্মিলা ঠাকুরের সঙ্গে প্রাক্তন ক্রিকেট অধিনায়ক নবাব মনসুর আলি খান পতৌদির বিয়েকেও ‘লভ জিহাদ’ বলে দেখানো হয়েছে।

একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার সময় হিন্দু কংগ্রেসের এক প্রতিনিধি ও লেখক দিলীপ আমিন দাবি করেছেন, ‘‘শর্মিলা ঠাকুরকে জোর করে বিয়ের সময়ে ধর্মান্তকরণ করতে হয়েছিল, ইসলাম ধর্মে গিয়ে তাঁর নাম পরিবর্তন করতে হয়েছিল। তাঁর নাম হয়েছিল বেগম আয়েষা সুলতান। শর্মিলা ঠাকুরকে তাঁর ছেলে মেয়েদেরও মুসলমান হিসেবে মানুষ করতে হয়েছে। তাদের নামও পরিবর্তন করতে হয়েছিল।’’

শর্মিলার ছেলে সইফ এক হিন্দু মহিলা অমৃতা সিংহকে বিয়ে করেন। তারপর তাঁকে ছেড়েও দেন। সইফের দ্বিতীয় স্ত্রী করিনা কপূর অবশ্য ইসলামীয় নাম নিতে অস্বীকার করেন। ‘‘আমাদের প্রশ্ন হল, তাঁদের সন্তান কি হিন্দুত্বের ছায়ায় বড় হতে পারবে?’’ প্রশ্ন আমিনের।

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

তিনি দাবি করেন, সারা বিশ্বে হিন্দুদের নিঃশব্দ নিধন যজ্ঞ চলছে। 

আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবতও দ্বিতীয় বিশ্ব হিন্দু কংগ্রেসে ভাষণ দেওয়ার সময় স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন, একতাই হল হিন্দু সমাজের অগ্রগতির জন্য বিশেষ জরুরি। 

তিনি বলেন, ‘‘হিন্দুরা কারও বিরোধিতা করে না। কিন্তু অনেকে আমাদের বিরোধিতা করেন। দুনিয়াই এরকম। আপনি দুনিয়াকে বদল করতে পারবেন না। আপনি নিজেকে পরিবর্তন করতে পারেন। তাদের ক্ষতি না করে এটা দেখতে হবে, যাতে তারা আপনার ক্ষতি না করতে পারে।’’

Copyright © 2018 Ebela.in - All rights reserved