মোহনবাগানের মন ভাঙল। ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের মন জুড়ালো।

ডার্বির আগেই মোহনবাগানকে গোল দিল লাল-হলুদ বাহিনী। আগেই জানা হয়ে গিয়েছিল মোহনবাগান ছাড়তে চলেছেন জাপানি কাটসুমি। কাটসুমির জায়গায় মোহনবাগান সই করিয়ে ফেলেছিল য়ুটা কিনোয়াকিকে। জাপানির বদলি জাপানি।

সবার অলক্ষ্যে নীরবেনিভৃতে ইস্টবেঙ্গল তুলে নিল কাটসুমিকে। ইতিমধ্যেই তিন বিদেশিকে সই করে ফেলিয়েছে লাল-হলুদ শিবির। উইলিস প্লাজার ফর্ম নিয়ে চিন্তিত সমর্থকরা। আইলিগে কী হবে জানা নেই। নতুন কোনও বিদেশি আসবেন কিনা, তা-ও জানা নেই। এর মধ্যেই ইস্টবেঙ্গল সই করিয়ে ফেলল সবুজ-মেরুনের হয়ে দারুণ সার্ভিস দেওয়া কাটসুমিকে। এই জাপানি ফুটবলারের দক্ষতা নিয়ে কোনও প্রশ্নই নেই। সনি নর্ধেও প্রবল ভাবে চেয়েছিলেন কাটসুমিকে। শেষমেশ মোহনবাগান কর্তারা সনির কথা শোনেননি।

কাটসুমি চলে যাওয়ায় বাগানের শক্তি কমল কিনা, তার জবাব দেবে সময়। তবে লাল-হলুদের তেজ যে বাড়ল তাতে কোনও সন্দেহই  নেই।

বাগান সমর্থকদেরও মন ভাঙল। সবুজ-মেরুন-এর হয়ে খেলেও গঙ্গাপারের ক্লাবকে নিজের করতে পারলেন না কাটসুমি। এটাই খোঁচা দিতে পারে সবুজ-মেরুন ভক্তদের।

মরশুমের গোড়াতেই গার্সিয়াকে তুলে নিয়েছিল ইস্টবেঙ্গল। এবার কাটসুমি। বড় ধাক্কা বাগানে।