SEND FEEDBACK

Cancel
English
Bengali
Cancel
English
Bengali

ফিটমন্ত্র: স্কুল-কলেজ পড়ুয়া ও অফিসযাত্রীদের জন্য শীতের ফিটনেস ডায়েট

নভেম্বর ২৫, ২০১৬
Share it on
শীতের ছোঁয়া লাগার সঙ্গেই যেন আমাদের মনে ফেস্টিভ মুড উঁকি দিতে শুরু করেছে। বিয়েবাড়ি, পার্টি, ছুটিতে বেড়াতে যাওয়া, বড়দিন, পিকনিক... আরও কত কিছু। তারিয়ে তারিয়ে সবকিছু উপভোগ করার এই তো আসল সময়!

শ্রদ্ধেয় পাঠক-পাঠিকাদের আমার আন্তরিক শুভকামনা জানিয়ে আবার ফিরে এলাম আপনাদের সর্বাঙ্গীন সৌন্দর্যায়নের ডালি সাজিয়ে। 

গুরুপ্রসাদ বন্দ্যোপাধ্যায় 

শীতের ছোঁয়া লাগার সঙ্গে সঙ্গেই যেন আমাদের মনে ফেস্টিভ মুড উঁকি দিতে শুরু করেছে। বিয়েবাড়ি, পার্টি, ছুটিতে বেড়াতে যাওয়া, বড়দিন, পিকনিক... আরও কত কিছু। তারিয়ে তারিয়ে সবকিছু উপভোগ করার এই তো আসল সময়! আনন্দের মাত্রা ১০০ শতাংশ ছুঁতে পারা সম্ভব, যদি আপনার পোশাক এবং ব্যক্তিত্বে একটা কনফিডেন্সের ছোঁয়া লাগে। 

আমার মতে, নির্মেদ টানটান ফিট চেহারাই এই অপূর্ব অনুভূতি উপলব্ধি করতে অনেকটাই সাহায্য করবে। চলুন, তাহলে আর সময় নষ্ট না করে শীতের মাত্র এই দুটো মাস পূর্ণমাত্রায় উপভোগ করি। আমি আগেও বলেছি এখনও বলছি— 

ফিগার = ৭০% ডায়েট + ৩০% এক্সারসাইজ

সুতরাং জমে থাকা মেদ যত তাড়াতাড়ি ঝরানো যাবে ততই মঙ্গল। আপনাদের এই ইচ্ছেটাতে ইন্ধন জোগাতে আমি একটা ছোট্ট উদাহরণ দেব, যেটা দেখার পরে হলফ করে বলতে পারি আপনারা মনস্থির করতে বাধ্য হবেন, বয়স যাই হোক না কেন! 

অরিন দাস— গুরু’স ফিটমন্ত্র ডায়েট ফলো করে আর ব্যায়াম করে ৪ মাসে ২৬ কেজি কমিয়ে এখন জীবনটা তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করছে...! সাবাস্‌ অরিন!!

তাহলে কালবিলম্ব না করে চলুন, কাজে নেমে পড়ি! 

স্কুল-কলেজ পড়ুয়াদের ডায়েট 

১. ঘুম থেকে উঠেই এক গ্লাস ইষদুষ্ণ জলে এক কিংবা দু’ফালি লেবুর রস মিশিয়ে খাও। 

২. ৩০ মিনিট পরে এককাপ চিনিছাড়া চা (লিকার চা, গ্রিন টি, দুধ চা-ও চলতে পারে) ও তার সঙ্গে একটা সুগার ফ্রি বিস্কুট। 

৩. ব্রেকফাস্ট— নোনতা ওটস, কর্নফ্লেকস, ডালিয়ার খিচুড়ি ও ফল। মাঝে একটা ফল কিংবা বিস্কুট খেতে পারো। 

৪. লাঞ্চ/ টিফিনটাইম— দুটো রুটি, সঙ্গে সবজি অথবা ডালিয়া-সহ। 

৫. ছুটি হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে একটা ফল (বাড়ি ফেরার আগে)।

৬. বাড়ি ফিরে হয় টম্যাটো-পেঁয়াজ ইত্যাদি দিয়ে ছোলার চাট নয়তো ছানা অথবা সুজির উপমা। যদি খিদে পায় তাহলে মাঝখানে এক কাপ স্কিমড দুধ। 

৭. ডিনারে একদিন দুটো রুটি, সবজি ও সঙ্গে চিকেন কিংবা মাছ আর একদিন সবজি/ চিকেন/ মাছের স্যুপ (অনেক সবজি দিয়ে যাতে পেট ভরে যায়) ও সঙ্গে দু’পিস ব্রাউন ব্রেড। তার সঙ্গে স্যালাড বা রায়তা। 

৮. যারা স্কুল থেকে সোজা টিউশনে যায়, তারা ছুটির পরে প্রথমে ফল খাবে। তার পর ছোট কৌটোয় করে শুকনো খোলায় ভাজা চিঁড়ে কিংবা একটু চানাচুর মিশিয়ে মুড়ি অথবা দুটো বিস্কুট।  

একটা কথা সবাইকে মনে রাখতে হবে যে, ডায়েট মানে বারে বারে অল্প করে খেতে হবে। খাবারে কোনওভাবেই গ্যাপ দেওয়া চলবে না। তা হলে খুব টায়ার্ড আর উইক লাগবে। তখন পুরো মেদ ঝরানোর প্ল্যানটাই ভেস্তে যাবে। শনিবার ও রবিবার দু’বেলাই ৫০ গ্রাম চালের ভাত খেতে পারো, অসুবিধে নেই। তবে জাঙ্কফুড একদম নয় ও কোল্ডড্রিঙ্ক একেবারেই বন্ধ। 

আগে শরীর ফিট করো, কনফিডেন্স লেভেল আরও বাড়াও, তার পর দেখা যাবে। তখন মনের জোর এত বেড়ে যাবে যে আজেবাজে জিনিস আর খেতেই ইচ্ছে করবে না। উপরে লেখা ডায়েট ফলো করা ছাড়াও প্রতিদিন ৩০ মিনিট ব্রিসক ওয়াক করার চেষ্টা কোরো। 

আরও পড়ুন

রোগা চেহারা ভাল করার কিছু সহজ ব্যায়াম

শরীরকে টোনিং করতে অভ্যাস করুন এই ব্যায়ামগুলি 

অফিসযাত্রীদের ডায়েট

১. সকালে গরম জলে লেবু

২. তার ৩০ মিনিট পরে চা-বিস্কুট

৩. অফিস বেরনোর আগে সিরিয়াল 

৪. মাঝে চা ও তার সঙ্গে একটা বিস্কুট

৫. লাঞ্চ ব্রেকে মিক্সড ফ্রুটস, দু’টি ডিমের সাদা অংশ। অল্টারনেট ডে-তে দুটো রুটি ও সবজি। 

৬. দু’ঘণ্টা পর চা ও একটা বিস্কুট 

৭. সন্ধ্যের খাবারে শুকনো চিঁড়ে বা অল্প মুড়ি, স্প্রাউটস ইত্যাদি

৮. বাড়ি ফিরে সুজির উপমা, ছানা, দুটো ইডলি কিংবা এক কাপ গরম দুধ (স্কিমড)

৯. ডিনারে একদিন রুটি-সবজি, চিকেন কিংবা মাছ আর অলটারনেটলি চিকেন/ সবজি/ মাছের স্যুপ (সব রকম সবজি দিয়ে) ও তার সঙ্গে স্যালাড কিংবা রায়তা। 

১০. শনি-রবিবার ৫০ গ্রাম চালের ভাত দু’বেলা খাওয়া যেতে পারে। খাওয়ায় গ্যাপ যেন কোনওভাবে না হয়। এর সঙ্গে রোজ ৩০ মিনিট থেকে ৪০ মিনিট ব্রিসক ওয়াকের সময় বার করতে পারলে তো আর কথাই নেই!

পরের বৃহস্পতিবার হাউজওয়াইফ স্পেশাল ওয়েটলস প্রোগ্রাম নিয়ে আপনাদের কাছে ফিরে আসছি। 

Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -