SEND FEEDBACK

Cancel
English
Bengali
Cancel
English
Bengali

ফিটমন্ত্র: পুজোর আগে স্ট্রেস কমিয়ে কীভাবে দেখাবেন ফ্রেশ, রইল টিপস

সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৭
Share it on
নিজের মনটাই হচ্ছে শেষ কথা। আমি সব সময় নিজে ভাবি আর সবাইকে বলি— ‘‘পাস্ট ইজ ডেড। কল হো না হো! এনজয় ইওর প্রেজেন্ট!’’

‘‘শেষ ভাল যার, সব ভাল তার।’’

আমার সব পাঠক-পাঠিকাদের আন্তরিকভাবে শুভ মহালয়া ও শারদীয়া প্রীতি ও শুভেচ্ছা কামনা করি— শেষ দু’মাস আপনাদের ভাল রাখার আমার আন্তরিক ইচ্ছা আর আপনাদের অক্লান্ত প্রচেষ্টা এবার পুজোয় ফলপ্রসূ হতে চলেছে। পুজো ফিটনেস পর্বে এটাই আমার শেষ নিবেদন। তাই লেখা শুরু করার প্রথমেই যেটা বলেছি তারই জের টেনে আবার বলছি, নিজের মনটাই হচ্ছে শেষ কথা। আমি সব সময় নিজে ভাবি আর সবাইকে বলি— ‘‘পাস্ট ইজ ডেড। কল হো না হো! এনজয় ইওর প্রেজেন্ট!’’

যার ফলে আমায় কেউ কোনওদিন শত প্রবলেম থাকলেও মুখ গোমড়া করতে দেখেনি। সব সময় পজিটিভ... আমি চাই আর সকলকে বলি এই ছোট্ট জীবনটা তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করুন। মনটাই যদি ঠিক না রইল তাহলে কী লাভ? আমরা মা-দিদিমাদের মুখে শুনতাম— ‘‘এক বালতি দুধে এক ফোঁটা চোনা!’’ পুরো দুধটাই নষ্ট। 

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

যতই সাজগোজ করি না কেন, যতই ভাল চেহারা তৈরি করার চেষ্টা করি না কেন, কোনও কিছুই ফলপ্রসূ হবে না যদি না টেনশন ফ্রি, রিল্যাক্সড ফিলিং না আসে। বিনা কারণে রেগে যাওয়া, তুচ্ছ জিনিসে অযথা চিন্তা করে স্ট্রেস ডেকে আনলে কোনওদিনও সুন্দর হতে পারবেন না— আর লাইফটাকে এনজয়ও করতে পারবেন না। এই ভাবেই তিলে তিলে নিজেকে শেষ করে জীবনের অন্তিমলগ্নে পৌঁছে যেতে হবে। 

তাহলে?? আমি সব সময় প্রবলেম ডিসকাস অবশ্যই করি— কিন্তু সেই প্রবলেমের পজিটিভ সুরাহার চাবিকাঠি আপনাদের হাতে জমা করে দিই। যাতে আমার দেখানো প্রচেষ্টায় আপনারা জীবনটা ‘তারিয়ে তারিয়ে’ উপভোগ করতে পারেন। আমি ছোট দুটো ভিডিও পেশ করছি— আপনারা ভাল করে দেখুন আর রোজ অন্ততঃ একবার করে প্র্যাকটিস করুন। এতে মন শান্ত ও স‌ংযত হবে। ব্রেনের সেল এবং শরীরের মাসল রিল্যাক্সড হবে। তার নিট ফল রোগমুক্ত, ফিট এবং গ্ল্যামারাস চেহারা। 

প্রথম প্রথম প্র্যাকটিস করতে খুব অসুবিধে হবে। কয়েকদিন একটু ধৈর্য ধরুন। আসতে আসতে আপনার মনটা নিজের কন্ট্রোলে চলে আসবে। যা যা বললাম এগুলো মনের ব্যায়াম, একটু সময়সাপেক্ষ— কিন্তু মনটাকে আয়ত্তে আনার পরে দেখবেন আপনার নিজেকে কত ভাল লাগছে। এই অভ্যাসে স্ট্রেস সংক্রান্ত নানান রোগ থেকে মুক্তি পাবেন। এই ভিডিও দেখে মনটাকে আয়ত্তে আনার পরে এই ভিডিওটা প্র্যাকটিস করবেন।

প্রথম ভিডিও অন্ততঃ একমাস ভাল করে অভ্যাস করে মনটাকে আয়ত্তে এনে ২ নম্বর ভিডিওটি অফিস-কাছারি, স্কুল-কলেজ, যেখানে-সেখানে দু’মিনিটের মধ্যেই নিজেকে রিল্যাক্সড করতে পারবেন। এই ভিডিও দুটো প্র্যাকটিস করলে পড়ুয়াদের মনোঃসংযোগ অনেকটাই বাড়বে। আমি মনে করি ‘‘মন ঠিক তো সব ঠিক’’। 

চলুন আমরা এই ফেসটিভ দিনগুলো একটা ঈর্ষণীয় চেহারা আর আকর্ষণীয় মন নিয়ে ‘ফুলটু’ এনজয় করি! নমস্কার! 

Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -