SEND FEEDBACK

Cancel
English
Bengali
Cancel
English
Bengali

দু’দিন বাদেই বিজয়া দশমী, রইল মিষ্টিমুখের সহজ দু’টি রেসিপি

সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৭
Share it on
বিজয়া দশমীর প্রস্তুতি শুরু করে দিন আজ থেকেই। দোকান থেকে না কিনে বাড়িতেই বানিয়ে ফেলতে পারেন বাংলার খুব প্রিয় মিষ্টি।

ক্ষীর ও নারকেলের নাড়ু

ছবি: ‘নারকেল নাড়ুু’ ফেসবুক পেজ থেকে

উপকরণ: 

নারকেল কোরা— ২ কাপ 

কনডেন্সড মিল্ক— ১ কাপ 

গ্রেট করা খোয়া ক্ষীর— ১ কাপ 

চিনি— ৪ টেবিলচামচ

ঘি— ২ টেবিলচামচ

পেস্তা কুচি— ২ টেবিলচামচ

ছোট এলাচ গুঁড়ো— ১/২ চা-চামচ


প্রণালী: একটা প্যানে ঘি গরম করে তাতে নারকেল কোরা, খোয়া ও চিনি দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন। এবার কনডেন্সড মিল্ক ঢেলে দিন ও কম মিষ্টির পাক দিন। ক্রমাগত নাড়বেন যাতে না লেগে যায়। যখন আঠা আঠা হয়ে আসবে তখন ছোট এলাচ গুঁড়ো ও পেস্তা কুচি মিশিয়ে, গ্যাস থেকে নামিয়ে নিন। ঠান্ডা হতে দিন। ঠান্ডা হলে লাড্ডুর আকারে গড়ে নিন। এই লাড্ডু আপনি বেশ কিছুদিন রেখে খেতে পারেন। 


রসগোল্লা

ছবি: থিঙ্কস্টক

উপকরণ: 

ফুল ক্রিম দুধের ছানা— ২ কাপ 

চিনি— ১ কেজি

জল— ১/২ লিটার 

কর্নফ্লাওয়ার— ১ টেবিলচামচ

কেওড়া জল— ১/২ চা-চামচ

প্রণালী: প্রথমে জল ও চিনি একটা পাত্রে রেখে ফুটতে দিন। দেখে নেবেন যেন চিনি একদম গুলে যায়। চিনির রস আলাদা করে রাখুন। এবার ছানা খুব ভাল করে চটকে নিন যতক্ষণ না খুব মসৃণ হয়। ছানার মণ্ড থেকে ১২টা গোল্লা করুন। আবার চিনির রস ফুটতে দিন। রস ফুটে উঠলে ১/২ কাপ জল কর্নফ্লাওয়ার গুলে রসের মধ্যে ঢেলে দিন। রস যখন ভাল করে ফুটবে তখন আঁচ বাড়িয়ে ছানার গোল্লাগুলো দিয়ে দিন। ১৫ মিনিট ফুটতে দিন। যদি দরকার হয় মাঝে মাঝে অল্প করে জল মেশাতে পারেন যাতে রসটা গাঢ় না হয়ে যায়। আঁচ থেকে নামিয়ে নিয়ে ১০ মিনিট রেখে দিন। ঠান্ডা হলে কেওড়ার জল দিন। ব্যস তৈরি আপনার রসগোল্লা। 

Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -