SEND FEEDBACK

English
Bengali
English
Bengali

এই ক্ষেত্রেও এয়ারটেলকে পিছনে ফেলে এক নম্বরে রিলায়েন্স জিও, সিলমোহর ট্রাই-এর

নিজস্ব প্রতিবেদন, এবেলা.ইন | এপ্রিল ৫, ২০১৭
Share it on
ট্রাই-এর রিপোর্টের পর এয়ারটেলের আরও মুখ পুড়ল বলেই মনে করা হচ্ছে। কারণ, জিও এবং এয়ারটেলের মধ্যে যুযুধান লড়াইয়ে ট্রাই-এর এই রিপোর্ট যে তথ্য সামনে এল তাতে দেশের এক নম্বর মোবাইল সংস্থা হওয়ার দাবি নিয়ে প্রশ্ন উঠে গেল।

৪ জি ইন্টারনেট পরিষেবার স্পিড দেওয়ার ক্ষেত্রে ফেব্রুয়ারিতে দেশের এক নম্বর সংস্থা ছিল রিলায়েন্স জিও। এমনকী, গত তিন মাসের যে তথ্য সংগ্রহ হয়েছে তাতেও ১ নম্বর স্থান দখল করে রেখেছে মুকেশ অম্বানির এই সংস্থা। খোদ ট্রাই এই রিপোর্ট মার্চ মাসের শেষে তাঁদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছে। 

ট্রাই-এর এই রিপোর্ট নিশ্চিতভাবেই রিলায়েন্স জিও-র মুকুটে আরও একটি পালক যোগ করল বলেই মনে করা হচ্ছে। তবে, রিলায়েন্স জিও-র গায়ে ১ নম্বর হওয়ার এই তকমাটা লেগেছে ৪জি ইন্টারনেট পরিষেবায় ডাউনলোডের ক্ষেত্রে।

সবচেয়ে বড় কথা যে এয়ারটেল দেশের ১ নম্বর পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থা হিসাবে নিজেদের দাবি করে, ৪জি ইন্টারনেট ডাউনলোডিং-এ তাঁদের স্থান এই মুহূর্তে ৩ নম্বরে। এই ক্ষেত্রে জিও-র পরে দ্বিতীয় স্থানটি দখল করে আছে আইডিয়া সেলুলার। 

আরও পড়ুন 

জিও-র সামার সারপ্রাইজ অফারে ঠিক কতটুকু লাভ আপনার? জেনে নিন 

এপ্রিল ফুল নয়। চালু হল আনলিমিটেড অফার। বেছে নিন সেরাটা

ট্রাই-এর রিপোর্ট অনুযায়ী ফেব্রুয়ারি মাসে ৪জি ইন্টারনেট ডাউনলোডিং-এ রিলায়েন্স জিও-র স্পিড ছিল প্রতি সেকেন্ডে ১৬.৪৮ এমবিপিএস। যদিও জানুয়ারি মাসে রিলায়েন্স জিও-র এই স্পিড ছিল ১৭.৪২ এমবিপিএস। তবু তারা এক নম্বর স্থান ধরে রেখেছে। 

দ্বিতীয় স্থানে থাকা আইডিয়া সেলুলারে ফেব্রুয়ারি মাসে ৪জি ইন্টারনেট ডাউনলোড স্পিড ছিল ১২.০৯ এমবিপিএস। সেখানে এয়ারটেলের ৪জি ডাউনলোড স্পিড ছিল ১০.৪৩ এমবিপিএস।

ফেব্রুয়ারি মাসে ভোডাফোনের ইন্টারনেট ডাউনলোডিং স্পিড ছিল ৭.৯৩৩ এমবিপিএস। জানুয়ারি মাসে ভোডাফোনের যেখানে ইন্টারনেট ডাউনলোডিং-এর স্পিড ছিল ৮.৩ এমবিপিএস সেখানে ফেব্রুয়ারি মাসের স্পিড বেশ কম। 

আপলোডিং-এর ক্ষেত্রে রিলায়েন্স জিও-র রেকর্ড অবশ্য এখনও উন্নতি হয়নি। কারণ, এই ক্ষেত্রে রিলায়েন্স জিও রয়েছে ৩ নম্বর স্থানে। ইন্টারনেট আপলোডিং-এ আইডিয়ার স্পিড সবচেয়ে বেশি। এই সংস্থার আপলোডিং স্পিড ৪.৩ এমবিপিএস। ভোডাফোন ৩.৪ এমবিপিএস স্পিড নিয়ে রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে। ৩.৩ এমবিপিএস নিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে জিও। ৩.২ এমবিপিএস আপলোডিং স্পিড নিয়ে চতুর্থস্থানে আছে এয়ারটেল। 

ট্রাই-এর এই রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসার পরই এখন বিপাকে পড়েছে এয়ারটেল। ওখলা নামে এক রেটিং সংস্থার নাম নিয়ে ইন্টারনেট স্পিডে নিজেদের দেশের এক নম্বর সংস্থা বলে এয়ারটেল দাবি করছিল। বিলবোর্ড বিজ্ঞাপন থেকে শুরু করে টেলিভিশন বিজ্ঞাপনেও এই দাবি করছিল মোবাইল পরিষেবা দেওয়া এই সংস্থাটি। 

কিন্তু, এয়ারটেলের এই দাবির বিরুদ্ধে সম্প্রতি ওখলা নামে রেটিং সংস্থাকে আইনি নোটিস ধরায় রিলায়েন্স জিও। সেইসঙ্গে ‘অ্যাডভার্টাইজিং স্ট্যান্ডার্স কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়া’ বা এএসসিআই-এর দ্বারস্থ হয়েছিল জিও। এরপরই বিষয়টি পর্যালোচনা করে ১ এপ্রিলের মধ্যে এই সমস্ত বিজ্ঞাপন সরিয়ে নিতে এয়ারটেলকেও নির্দেশ দিয়েছিল এএসসিআই। শেষ পাওয়া খবরে ট্রাই-এর রিপোর্ট সামনে আসার পর এখন এয়ারটেল এই সমস্ত বিজ্ঞাপন অবিলম্বে সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

Reliance JIO Vodafone Airtel Idea Cellular 4G Internet Speed Download Upload
Share it on
Community guidelines
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -