SEND FEEDBACK

English
Bengali
English
Bengali

‘মেমবউ’ ধারাবাহিকের জন্য ডাক পড়ল আর তার পরেই শুরু হল সমস্যা

পৌরবী সেনগুপ্ত | মার্চ ২০, ২০১৭
Share it on
টেলি-জগতে পা রেখেছেন গত বছর। আর তার পরেই একটি তীব্র সমস্যার মুখোমুখি হয়েছিলেন পৌরবী। কিন্তু কেন? অকপট স্বীকারোক্তি এবেলা ওয়েবসাইটের কাছে।

আমাকে সবাই খুব হাসিখুশি মানুষ হিসেবেই জানে। আমিও সারাক্ষণ কথা বলতে ভালবাসি, সবার সঙ্গে আনন্দ করতে ভালবাসি। ‘দুগ্গা দুগ্গা’ হোক বা ‘মেমবউ’ খুব আনন্দ করে কাজ করেছি এবং করছি। খুব ভালবেসেই অভিনয় জগতে এসেছি কিন্তু এই অভিনয়ের কারণেই গত বছর বেশ অনেকটা সময় আমি ডিপ্রেশনের মধ্যে চলে গিয়েছিলাম। 

অভিনয় যেমন ভালবাসি, পড়াশোনা করতেও ততটাই ভালবাসি। তাই অভিনয় করছি বলে যে পড়াশোনা ছেড়ে দেব, সেটা কখনোই ভাবিনি। গত বছর উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা শেষ হওয়ার পরে ‘দুগ্গা দুগ্গা’ ধারাবাহিকে অভিনয় শুরু করি। জুন মাসেই ওই ধারাবাহিকটি শেষ হয় আর ওই মাসেই আমি বাংলা অনার্স নিয়ে ভর্তি হই। খুব ভাল লাগছিল। বাংলা সাহিত্য বরাবরই আমার খুব প্রিয়। 

আরও পড়ুন

হাত ধরা হয়নি, তবুও সে রয়ে গেছে

বেশ কিছু মাস পরে ছেলেটি একদিন আমায় ফোন করল 

কিন্তু তার কয়েক মাস পরেই ‘মেমবউ’-এর জন্য ডাক পড়ল। তার পরেই শুরু হল সমস্যা। শ্যুটিংয়ের চাপে কলেজ যেতে পারতাম না, অ্যাটেন্ডেন্স নিয়ে সমস্যা হল। পরীক্ষায় বসতে গেলে একটা ন্যূনতম অ্যাটেন্ডেন্স তো লাগে কিন্তু আমি কিছুতেই ম্যানেজ করতে পারছিলাম না। আমার মা কলেজে গিয়ে কথাও বলেছিল কিন্তু কিছু লাভ হয়নি। আমি বরাবরই ভাল ছাত্রী। একটা বছর যে পরীক্ষায় বসতে পারব না, পড়াশোনায় গ্যাপ দিতে হবে সেটা মাথাতেও আসেনি। 

একদিন একজন অধ্যাপক সবার সামনে বললেন, ‘তোমাকে পড়াশোনা করতে হবে না, সিরিয়ালই করো’— খুব আঘাত পেয়েছিলাম। খুব কষ্ট হয়েছিল। আমার বন্ধুরা আমার থেকে এগিয়ে গেল, আমি পারলাম না, আমি আর কোনওদিন পড়াশোনা করতে পারব না? সারাক্ষণ এই ভাবতে ভাবতে মারাত্মক ডিপ্রেশনে চলে গিয়েছিলাম। বাবা-মা আমাকে অনেক বুঝিয়েছিল যে একটা বছর দেখবি কাজ নিয়ে কেটে যাবে কিন্তু তাও শান্তি পাচ্ছিলাম না। 

শান্তি পেলাম একজন মানুষের জন্য, আমার জীবনের খুব স্পেশাল একজন মানুষ। ওই আমার প্রথম প্রেম, আমাকে ও আস্তে আস্তে ডিপ্রেশন থেকে বার করে এনেছে। ওর সঙ্গে থাকতে থাকতে মনে হয় যে সব ঠিক হয়ে যাবে। আমার বাবা-মাও একটু শান্তি পেয়েছে যে মেয়েটা ভাল আছে। এবং পড়াশোনা আমি আবারও শুরু করব। এই একটা বছরে অনেক কিছু শিখলাম, সেটাও জীবনের একটা বড় অভিজ্ঞতা তো বটেই। 

আমি খুব কার্টুন দেখতে ভালবাসি ছোট থেকে। একটা ডোরেমন চাইতাম যে আমাকে সব প্রবলেম থেকে বাঁচাবে। আমি আমার ডোরেমনকে পেয়ে গিয়েছি। বাবা-মা’র সাপোর্ট তো প্রয়োজন বটেই কিন্তু ও যদি আমার পাশে না থাকত তাহলে হয়তো এখন আরও গভীর ডিপ্রেশনে চলে যেতাম। 

Bengali Television Bengali Actress Paurabi Sengupta Membou Ebela Confession
Share it on
Community guidelines
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -