SEND FEEDBACK

English
Bengali
English
Bengali

আগের জন্মে আপনি কেমন ছিলেন, জেনে নিন এই সহজ পরীক্ষায়

নিজস্ব প্রতিবেদন, এবেলা.ইন | মার্চ ১৩, ২০১৭
Share it on
জন্মান্তর-রহস্যকে নিয়ে বিস্তর কথা বলে নিউমেরোলজি বা সংখ্যাতত্ত্ব। এই শাস্ত্র মতে, একটি সহজ হিসেব কষে নিলে আপনার সামনে উদ্ভাসিত হতে পারে আপনার বিগত জন্মের খুঁটিনাটি।

হিন্দু, বৌদ্ধ ও জৈন ধর্মে জন্মান্তর একটি সিদ্ধ বিষয়। ভারতীয় দর্শনের অন্যতম প্রধান শাখা ন্যায়শাস্ত্রও তার সামগ্রিক যুক্তিকাঠামো জন্মান্তরের উপরেই ভিত্তি করে প্রতিষ্ঠিত রাখে। ফলত, এক বিপুল সংখ্যক মানুষের কৌতূহল বিগত জন্মকে ঘিরে আবর্তিত হয়। জন্মান্তর-রহস্যকে নিয়ে বিস্তর কথা বলে নিউমেরোলজি বা সংখ্যাতত্ত্ব। এই শাস্ত্র মতে, একটি সহজ হিসেব কষে নিলে আপনার সামনে উদ্ভাসিত হতে পারে আপনার বিগত জন্মের খুঁটিনাটি।

নিউমেরেলজিস্টরা জানচ্ছেন, বিগত জন্মে আপনি কী করতেন, কেমন ছিলেন, তা জানার জন্য আপনাকে প্রথমে জানতে হবে আপনার ‘লাইফ পাথ নাম্বার’। এই নম্বর পাওয়া তেমন কিছু কঠিন নয়, আপনার জন্মতারিখের মধ্যেই রয়েছে এই নম্বর। আপনার জন্ম যদি ১৩.০৩.১৯৮১ হয়ে থাকে, তবে আপনি ডিজিটগুলিকে যোগ করুন (১+৩+৩+০+১+৯+৮+১= ২৬)। এবার যোগফলের ডিজিটগুলিকে যোগ করুন (এক্ষেত্রে ২+৬=৮)। এই সংখ্যাটিই আপনার লাইফ পাথ নাম্বার।

এর পরের ধাপে আপনাকে পেতে হবে আপনার ‘ইনার নিড নাম্বার’। এই নম্বর পাওয়ার প্রক্রিয়াটি হল— আপনার নামের ইংরেজি বানানে থাকা ভাওয়েলগুলিকে বের করুন (যদি নাপনার নাম অতনু হয়, তা হলে ATANU থেকে A, A,U-কে বের করতে হবে।) নিউমেরোলজির মতে, প্রত্যেক ভাওয়েলের নিজস্ব সংখ্যা রয়েছে। যথা— A=১, E=৫, I=৯, O=৬, U= ৩। এই বার ভাওয়েলগুলিকে যোগ করলেই পাওয়া যাবে ইনার নিড নাম্বার (অতনু-র ইনার নিড নাম্বার হবে— ১+১+৩=৫)।

তৃতীয় বা চূড়ান্ত ধাপে আপনার লাইফ পাথ নাম্বার ও ইনার নিড নাম্বারকে যোগ করুন (এক্ষেত্রে ৮+৫= ১৩)। এই যোগফলই আপনার ‘পাস্ট লাইফ নাম্বার’ (এক্ষেত্রে ১+৩=৪ হবে অতনুর পাস্ট লাইফ নাম্বার)।    

এবারে দেখা যাক, পাস্ট লাইফ নাম্বারগুলিকে বিচার করে নিউমেরালজি কী জানায় পূর্বজন্মের বিষয়ে।

— এই পাস্ট লাইফ নাম্বারের মানুষ পূর্বজন্মে নেতৃস্থানে আবস্থান করতেন। এমনকী, তাঁদের রাজা অথবা রাণিও হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তিনি সফল রাজনীতিবিদও হতে থাকতে পারেন। মোটের উপরে বিগত জন্মে তিনি প্রবল সম্মানিত ছিলেন। সেই জন্মের কিছু দায় বর্তমান জন্মেও বর্তেছে। আপনাকে অনেক সময়েই পারিবারিক ক্ষেত্রে বা কর্মস্থলে সিদ্ধান্ত গ্রহণের দায়িত্ব নিতে হয়।

২— বিগত জন্মে প্রেমিক স্বভাবের মানুষ ছিলেন এই পাস্ট লাইফ নাম্বারের অধিকারীরা। কিন্তু তাঁদের প্রেম সেই জন্মে সফল না-ও হয়ে থাকতে পারে। সেই বিরহবেদনা তাঁদের এই জন্মেও তাড়া করে ফেরে। তাই বেশিরভাগ সম্পর্কে এঁরা পুরো তৃপ্ত হন না। পুরনো প্রেমকে হাতড়ে ফেরে এঁদের আত্মা।  

৩— এই পাস্ট লাইফ নাম্বারের অধিকারীরা বিগত জন্মে সৃষ্টিশীল মানুষ ছিলেন। শিল্পী হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল এঁদের ক্ষেত্রে। পারিবারিক ভাবেও এঁরা তৃপ্ত ছিলেন। বাগান করতে ভালবাসতেন সেই জন্মে। এই স্বভাব এই জন্মেও ছায়া ফেলে।

আরও পড়ুন
ঘড়িতে ৫:৫৫ বা ২:২২? তৈরি থাকুন, কিছু ঘটবেই...
‘মহাভারত’ জুড়ে উঁকি দেয় এক রহস্যময় সংখ্যা। ব্যাখ্যা কী এই আশ্চর্যের?
 

৪— আগের জন্মের একাটা বড় অংশ এঁদের কেটেছে বন্দি অবস্থায়। দারিদ্র্য ছিল এঁদের নিত্যসঙ্গী। আবার এঁদের অনেকে সেনাদলেও থাকতে পারেন। পরে হয়তো যুদ্ধবন্দি হিসেবে থাকতে হয়েছে।

৫— এই সংখ্যা যুদ্ধের দ্যোতক। যাঁদের পাস্ট লাইফ নাম্বার এই সংখ্যা, তাঁরা কোনও না কোনও ভাবে যুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন। সবাই যে সৈন্য ছিলেন, এমন নয়। কেউ কেউ লুঠেরা, অস্ত্র নির্মাতা, দূতও হয়ে থাকতে পারেন। এই জীবনে তাঁরা লড়াইখ্যাপা হয়ে থাকেন অনেক সময়েই।

৬— এই পাস্ট লাইফ নাম্বারের মানুষ আগের জন্মে ধর্মভীরু ছিলেন। তাঁদের প্রথম যুগের খ্রিস্টান বা বৌদ্ধ হওয়ার সম্ভাবনা প্ববল। তাই এ জন্মে তাঁরা দয়ালু মানুষ। এখনও আধ্যাত্মপ্রবণতা তাঁদের মধ্যে রয়ে গিয়েছে।

৭— এই পাস্ট লাইফ নাম্বারেরর অধিকারীরা গতজন্মে হয়েতো শিক্ষক বা গুরু ছিলেন। এঁদের বৌদ্ধিক উৎকর্ষ এই জন্মেও থেকে গিয়েছে। এঁদের কারোর কারোর ধর্মগুরু হওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে।

৮— নারী-পুরুষ নির্বিশেষে এই পাস্ট লাইফ নাম্বারের অধিকারীরা গতজন্মে চিকিৎসক ছিলেন। এঁদের আর্থিক সাফল্য ছিল প্রশ্নাতীত। এঁরা নিজেরাও অর্থকে গুরুত্ব দিতেন। সেই স্বভাবের রেশ এই জন্মেও থেকে গিয়েছে।

৯— অভিযানের চিহ্ন রয়েছে এই পাস্ট লাইফ নাম্বারে। এঁরা বিগত জন্মে নাবিক, অভিযাত্রী অথবা সাংবাদিক ছিলেন। ধর্মপ্রচারক হওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে। এই বৃত্তি আজও তাঁদের তাড়া করে। এঁরা এই জন্মে সুদূরের পিয়াসী। ঘরে এঁদের মন টেকে না।

Numerology Past life Prediction Rebirth
Share it on
Community guidelines
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -