SEND FEEDBACK

English
Bengali
English
Bengali

দীপা কর্মকারকে দিনের পর দিন মানসিক আঘাত করতেন কোচ! কেন? জেনে নিন তা।

নিজস্ব প্রতিবেদন | সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৬
Share it on
দীপা কর্মকার সফল কেন? কেউ বলবেন অনুশীলনের জোরে। আবার কেউ জবাব দেবেন, পরিশ্রম এবং দুরন্ত প্রতিভার জন্যই তিনি সাফল্যের শীর্ষে পৌঁছেছেন।

দীপা কর্মকার সফল কেন? কেউ বলবেন অনুশীলনের জোরে। আবার কেউ জবাব দেবেন, পরিশ্রম এবং দুরন্ত প্রতিভার জন্যই তিনি সাফল্যের শীর্ষে পৌঁছেছেন। বাইরে থেকে অনেককিছুই বলা সম্ভব। দীপার দীর্ঘদিনের কোচ বিশ্বেশ্বর নন্দী স্বয়ং বরফ গলিয়েছেন। রহস্য উন্মোচন করে জানিয়েছেন আসল সত্যিটা। দীপার সফল্যের আসল চাবিকাঠিটাই সবার সামনে বিশ্বেশ্বর তুলে ধরেছেন। 
দীপার আবেগ, অনুভূতি, আগ্রাসন বাড়ানোর জন্য অদ্ভুত এক উপায় বের করেছিলেন পোড়খাওয়া কোচ বিশ্বেশ্বর। আর সেই পদ্ধতি প্রযোগ করে দারুণ সফল হয়েছেন তিনি। বের করে নিতে পেরেছেন দীপার সেরাটা। তাই তো রিও অলিম্পিক্সে চতুর্থ হয়ে শেষ করেছেন ত্রিপুরার মেয়েটি। হারার আগেই হেরে বসেননি। শেষ পর্যন্ত লড়ে গিয়েছেন। নিজের সেরাটা তুলে ধরেছেন। 
সেই পদ্ধতিটা কী, যার জন্য দীপা সেরা ফর্মে ধরা দিয়েছেন রিওতে। দ্রোণাচার্য কোচ বলছেন, ‘আমি দীপাকে মানসিক ভাবে আঘাত করতাম।’ এই পর্যন্ত পড়ে অনেকেই চমকে যেতে পারেন। কোচ মানসিক আঘাত করতেন প্রিয় ছাত্রীকে! তাতে তো হিতে বিপরীত হতে পারে? ভেঙে পড়তে পারতেন দীপা। প্রভাব পড়তে পারত তাঁর পারফরম্যান্সে। বিশ্বেশ্বর বলছেন, ‘ওটাই ছিল দীপার কাছ থেকে সেরা পারফরম্যান্স বের করে আনার আসল পদ্ধতি।’ সময়ে সময়ে বিশ্বেশ্বর এতটাই মানসিক আঘাত করতেন দীপাকে যে তা সহ্য করতে না-পেরে ত্রিপুরার মেয়েটি কেঁদে ফেলতেন। কাঁদতে কাঁদতে কোচকে অনুরোধ করতেন, ‘আঙ্কেল, এভাবে আর বলো না।’ 

আরও পড়ুন

বিগ বি থেকে মাধুরী— দীপায় মাতোয়ারা সবাই। কিন্তু সলমন খান কী করলেন?

মন্ত্রীমশাই গোয়েল এবার দীপাকে নিয়ে গোলমাল বাধালেন টুইটারে। ক্ষুব্ধ ভারতবাসী

পদক জিততে না-পারায় দীপা যা করলেন, তা জানলে আপনিও সমবেদনা জানাবেন

তাই বলে দীপা যে কোচের কথার অন্যথা করতেন, তা নয়। বিশ্বেশ্বর বলছেন, ‘কোচের পরামর্শ অক্ষরে অক্ষরে মেনে চললে তবেই একজন অ্যাথলিট সেরা ফর্মে ধরা দিতে পারেন।’ দীপাও সেটাই করেছেন। প্রিয় ছাত্রীর কাছ থেকে আরও ভাল পারফম্যান্স বের করে আনার জন্য বিশ্বেশ্বর রিও অলিম্পিক্সের চতুর্থ স্থানাধিকারী দীপাকে মানসিকভাবে আঘাত করতে থাকেন। আর প্রিয় কোচের কাছ থেকে এমন আঘাত পাওয়ার পরেই দীপা পূর্ণ উদ্যমে ঝাঁপিয়ে পড়তেন অনুশীলনে। ভিতরে ভিতরে তেতে উঠতেন। আরও বেশি আগ্রাসী হয়ে উঠতেন। জেতার খিদে বেড়ে যেত বেশ কয়েকগুণ। আর এই মোক্ষম দাওয়াই দিয়েই বিশ্বেশ্বর ছাত্রীর কাছ থেকে বের করে এনেছেন সেরা পারফরম্যান্স। সেটাই সবর্সমক্ষে জানিয়ে দিলেন দ্রোণাচার্য় কোচ। 

 

Dipa Karmakar Bisheswar Nandi
Share it on
Community guidelines
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -