SEND FEEDBACK

English
Bengali

বাড়িতে গিয়েও মুখ্যমন্ত্রীর দেখা পেল না আত্মঘাতী পুলিশকর্মীর পরিবার

নিজস্ব সংবাদদাতা | মার্চ ২০, ২০১৭
Share it on
রাজ্য পুলিশের ‘স্পেশাল স্ট্রাইকিং ফোর্সে’র সাব-ইন্সপেক্টর সৌভাগ্য দাস গত ১২ মার্চ আত্মঘাতী হন। পোস্টিং ছিল ব্যারাকপুরে। পরিবারের অভিযোগ, ‘স্পেশাল স্ট্রাইকিং ফোর্সে’র ব্যাটেলিয়ন কম্যাডান্ট এস এম এইচ মির্জা এবং আরেক পুলিশ আধিকারিকের মানসিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন সৌভাগ্য। যদিও অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন মির্জা।

মুখ্যমন্ত্রীর কালীঘাটের বাড়িতে গিয়েও তাঁর দেখা না পেয়ে ফিরতে হল আত্মঘাতী পুলিশকর্মীর পরিবারকে। 
রাজ্য পুলিশের ‘স্পেশাল স্ট্রাইকিং ফোর্সে’র সাব-ইন্সপেক্টর সৌভাগ্য দাস গত ১২ মার্চ আত্মঘাতী হন। পোস্টিং ছিল ব্যারাকপুরে। পরিবারের অভিযোগ, ‘স্পেশাল স্ট্রাইকিং ফোর্সে’র ব্যাটেলিয়ন কম্যাডান্ট এস এম এইচ মির্জা এবং আরেক পুলিশ আধিকারিকের মানসিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন সৌভাগ্য। যদিও অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন মির্জা। ওই দুই পুলিশ আধিকারিকের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানো এবং পরিবারের বেঁচে থাকার উপায় করে দেওয়ার আবেদন জানানোর জন্যই সোমবার সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ পাঁচ বছরের শিশুসন্তান সৌগতকে সঙ্গে নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে যান মৃত পুলিশকর্মীর স্ত্রী সুচিত্রা। সঙ্গে তাঁর পরিবারের সদস্যেরাও ছিলেন। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা হয়নি পরিবারের সদস্যদের। এমনকী, সংবাদমাধ্যমের নজর এড়ানোর জন্য সৌভাগ্যের পরিবারকে পুলিশের গাড়িতে তুলে শিয়ালদহ স্টেশন পর্যন্ত                                                                                               পৌঁছে দেওয়া হয়। 
সুচিত্রা বলেন, ‘‘মুখ্যমন্ত্রীর পিএ সব কাগজপত্র নিয়েছেন। তিনি বলেছেন, এভাবে দেখা করা যায় না। আমাদের যাতে একটা বন্দোবস্ত হয়, তাই গিয়েছিলাম। বলা হয়েছে, সৌভাগ্যের ডেথ সার্টিফিকেট জমা দিয়ে আবেদন করতে।’’ তবে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা না হলেও হাল ছাড়তে নারাজ মুর্শিদাবাদের সামসেরগঞ্জের বাসিন্দা সৌভাগ্যের পরিবার। এদিন ঘটনার বিবরণ দিয়ে একটি লিখিত বয়ানও জমা দিয়েছে তারা। 
বিহিত চেয়ে আদালতের দ্বারস্থ হতে চায় সৌভাগ্যের পরিবার। সুচিত্রার বাবা স্বপন দাস বলেন, ‘‘আমরা কলকাতা হাইকোর্টে যাব। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের জন্যই শেষ হয়ে গেল সৌভাগ্য।’’ একসময়  রাজ্য সরকারের ‘সুনজরে’ ছিলেন মির্জা। তাই কি মুখ্যমন্ত্রীর সাক্ষাৎ থেকে বঞ্চিত হতে হল পরিবারকে? সে প্রশ্ন উঠলেও সতর্ক জবাব স্বপনের। তাঁর কথায়, ‘‘কেন দেখা করলেন না মুখ্যমন্ত্রী, আমরা কী করে জানব!’’ প্রসঙ্গত, নারদ-কাণ্ডেও নাম জড়িয়েছে মির্জার। 

Souvaggya Das Mamata Banerjee
Share it on
Community guidelines
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -